সংবাদ ডেস্ক :

পরিচয় থেকে কর্মকাণ্ড, করোনা সনদ থেকে টাকা- সাহেদের কাছে যেন শুধুই জাল আর জালিয়াতির একের পর এক মজুদের ভাণ্ডার। রিজেন্ট হাসপাতাল চেয়ারম্যান সাহেদকে নিয়ে তার উত্তরার বাসায় অভিযান চালায় র‌্যাব। আর সেখান থেকে উদ্ধার হয়েছে বিপুল পরিমাণ জাল টাকা। আনুষ্ঠিকভাবে র‍্যাবের ব্রিফিং বাকি থাকলেও এ তথ্য নিশ্চিতভাবে জানা গেছে।

বুধবার (১৫ জুলাই) বেলা সাড়ে ১২টার দিকে র‌্যাবের একটি দল এ অভিযান শুরু করে। প্রায় এক ঘণ্টার অভিযান শেষে তাকে আবারও র‌্যাব সদর দফতরে নেয়া হয়েছে।

অভিযানে শাহেদের বাসায় বিপুল পরিমাণ জাল টাকা পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছে অভিযানে অংশ নেয়া আইন শৃঙ্খলাবাহিনীর একটি সূত্র।

তবে অভিযানের ঘটনাস্থলে এ বিষয়ে জানতে চাইলে র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলম এই মুহূর্তে কিছু বলতে রাজি হননি। র‌্যাবের প্রধান কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে বিস্তারিত জানানো হবে বলেও জানান তিনি।

র‌্যাব সদস্যরা দুইটি শাবল নিয়ে শাহেদের বাসায় প্রবেশ করে। তখন থেকেই ধারণা করা হচ্ছিল যে সেখানে হয়তো এমনকিছু লুকিয়ে রাখা হয়েছে, যা ভাঙে উদ্ধার করতে হবে।

এর আগে বুধবার ভোরে রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান শাহেদ করিমকে সাতক্ষীরা থেকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। এসময় তার কাছ থেকে অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার করা হয়।

ভোর ৫টা ১০ মিনিটে সাতক্ষীরার সীমান্তের দেবহাটা থানার সাকড় বাজারের পাশে অবস্থিত লবঙ্গপতি এলাকা থেকে বোরকা পরে নৌকায় পালিয়ে থাকা অবস্থায় তাকে গ্রেফতার করা হয়। এর পর সকাল ৮টা ১০ মিনিটে সাতক্ষীরা স্টেডিয়াম থেকে হেলিকপ্টারে করে শাহেদকে নিয়ে ঢাকার উদ্দেশে রওয়ানা দেয় র‌্যাবের দলটি।

সকাল ৯টায় তাকে বহনকারী হেলিকপ্টারটি ঢাকার তেজগাঁও পুরাতন বিমাবন্দরে এসে পৌঁছায়। সেখান থেকে তাকে র‌্যাব সদর দফতরে নেয়া হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here