সংবাদ ডেস্ক :

সিলেট জেলায় নতুন করে আরও ৩২ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। শনিবার (১১ জুলাই) সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজের পিসিআর ল্যাবে ১৮৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এরমধ্যে ৩২ জনের করোন শনাক্ত হয়।

সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের উপ পরিচালক ডা. হিমাংশু লাল রায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, নতুন শনাক্তদের মধ্যে সিলেট সদর উপজেলার ২৮ জন, বিয়ানীবাজার উপজেলা একজন, বিশ্বনাথ উপজেলার একজন, দক্ষিণ সুরমা উপজেলার একজন ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন একজন রয়েছেন বলেও জানান তিনি।

গত বছরের ৩১ ডিসেম্বরে চীনের উহান থেকে ছড়িয়ে পড়া বৈশ্বিক মহামারী করোনাভাইরাস বাংলাদেশে ধরা পরে গত ৮ মার্চ। আর সিলেট বিভাগে সর্বপ্রথম করোনাভাইরাস ধরা পড়ে গত ৫ এপ্রিল। এরপর প্রতিদিন বাড়ছে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যাও।

সবশেষ শনিবার (১১ জুলাই) সুনামগঞ্জের ১১ জন আর সিলেটের ৩২ জন নিয়ে সিলেট বিভাগে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫ হাজার ৭৯৭ জন। এরমধ্যে সিলেট জেলায় ৩ হাজার ৭৪ জন, সুনামগঞ্জে ১ হাজার ১৭৩ জন, হবিগঞ্জে ৮৯৩ জন ও মৌলভীবাজারে ৬৫৭ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

অন্যদিকে সিলেট বিভাগে প্রতিদিনই বাড়ছে সুস্থ রোগী সংখ্যা। গত ২৭ এপ্রিল বিভাগে প্রথম সুনামগঞ্জে দুই রোগী করোনাভাইরাস জয় করে বাড়ি ফেরেন। এরপর প্রতিদিন বিভাগের বিভিন্ন জেলার রোগীরা করোনা জয় করে বাড়ি ফিরছেন। সবশেষ শনিবার পর্যন্ত সিলেট বিভাগে করোনাভাইরাসকে জয় করে বাড়ি ফিরেছেন ২ হাজার ১৩৮ জন। এরমধ্যে সিলেট জেলায় ৬৫৯, সুনামগঞ্জে ৭৮১, হবিগঞ্জে ৩৬৭ এবং মৌলভীবাজারে ৩৩১ জন।

গেল ৪ এপ্রিল বিভাগের প্রথম রোগী হিসেবে মৌলভীবাজারের রাজনগরে এক ব্যবসায়ী মারা যান। যদিও তার করোনা শনাক্তের রিপোর্ট এসেছিল ৫ এপ্রিল। এরপর থেকে প্রতিদিন বাড়ছে মৃত্যুও সংখ্যা। সবশেষ শনিবার পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সিলেট বিভাগে মারা গেছেন ৯৭ জন। এরমধ্যে সিলেটে ৭৬, মৌলভীবাজারে ৭, সুনামগঞ্জে ৮ এবং হবিগঞ্জে ৬ জন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here