সংবাদ ডেস্ক :

বিকেল ৩টা। মাইকে এক ব্যক্তি বলছেন, ‘সম্মানিত ক্রেতা-বিক্রেতাগণ, আপনারা মাস্ক ব্যবহার করুন, স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখুন’। মাইকে বার বারই এমন প্রচার চলছিল। শুনেছেন সবাই, কিন্তু মানলেন না কেউ! গতকাল শুক্রবার (১০ জুলাই) এমন দৃশ্য দেখে দেখা গেছে সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরের রসুলগঞ্জ বাজারের কোরবানির পশুর হাটে।

সরেজমিনে দেখা যায়, সরকারি নির্দেশনা উপেক্ষা করে মুখে মাস্ক ব্যবহার না করে এবং স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব বজায় না রেখে পশুর হাটে ক্রেতা-বিক্রেতার ঢল নেমেছে। মাস্ক ছাড়া ঘুরছেন কেন- লোকসমাগমের মাঝে এমন প্রশ্ন ছিল হাটে আসা রমজান আলী নামের এক ক্রেতার কাছে। তিনি জানান, মাস্ক প্যান্টের পকেটে আছে। গরমের জন্য তিনি মুখে ব্যবহার করেননি।

বাজারে আসা বিক্রেতাদের মধ্যেও কাউকে মাস্ক পরতে দেখে যায়নি। আব্দুল বারিক নামে এক গরু ব্যবসায়ী বলেন, ‘মাস্ক সঙ্গে আছে, মাঝে-মধ্যে ব্যবহার করি। সবসময় ব্যবহার করতে পরি না।’

হাটের ইজারাদার আবু জিলানি জানান, শুক্রবার ছিল কোরবানির পশুর প্রথম হাট। উপস্থিতি বেশি থাকলেও বেচা-বিক্রি আশানুরূপ হয়নি। তবে ঈদের দিন ঘনিয়ে আসার সঙ্গে সঙ্গে বাজার জমজমাট হয়ে উঠবে।

তিনি বলেন, ‘হাটে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য আমরা বার বার মাইকিং করে লোকজনের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।’

উপজেলা প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তা ডা. মো. খালেদ সাইফুল্লাহ বলেন, ‘আমরা জেলা প্রাণীসম্পদ অফিস থেকে চিঠি পেয়েছি। প্রতিটি পশুর হাটে মাস্ক ছাড়া কাউকে ভেতরে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না।’

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মাহফুজুল আলম মাসুম জানান, স্বাস্থ্যবিধি মেনে কোরবানির হাট পরিচালনার জন্য নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here