সংবাদ ডেস্ক ::

বাংলাদেশের অনেক অঞ্চলের মাটিতে ক্রোমিয়াম, ক্যাডমিয়াম এবং সীসার মতো ভারী ধাতু অতিরিক্তমাত্রায় পাওয়া গেছে। খাদ্যচক্রের মাধ্যমে সেসব ক্ষতিকর উপাদান মানবদেহে প্রবেশের কারণে স্বাস্থ্যঝুঁকি দেখা দিয়েছে।

বিশেষজ্ঞদের মত, ক্যাডমিয়াম আসছে রাসায়নিক সার থেকে এবং ক্রোমিয়াম ও সীসা আসছে মূলত শিল্পকারখানা, ইলেক্ট্রনিক এবং মেডিকেল বর্জ্য থেকে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মৃত্তিকা, পানি ও পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের সাবেক শিক্ষক অধ্যাপক ইমামুল হক  বলেন, “যদি মাটি দূষিত হয় তাহলে সেই দূষণ খাদ্যচক্রের মাধ্যমে চলে আসে।”

তার মতে, “শিল্প এলাকার মাটি ভীষণভাবে দূষিত হয়েছে। অন্যদিকে, কৃষিপ্রধান অঞ্চলগুলোতে ভারী ধাতুর পরিমাণ তুলনামূলকভাবে কম।”

ভূগর্ভস্থ পানি ব্যবহারের ফলে কিছু কিছু ভারি ধাতু মাটির উপরের স্তরে চলে আসছে। এছাড়াও, রাসায়নিক সার, কীটনাশক ও দূষিত পানির মাধ্যমে মাটি দূষিত হচ্ছে বলে মত দিয়েছেন বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের মৃত্তিকা বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক মোহাম্মদ মফিজুর রহমান জাহাঙ্গীর।

গত ২০১২ সাল থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত ১৭ জেলার ৫৭ উপজেলা থেকে ১ হাজার ৪৪৪টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। নমুনা নেওয়া সেই জেলাগুলো হলো: বাগেরহাট, বরগুনা, বগুড়া, চাঁদপুর, কুমিল্লা, গোপালগঞ্জ, যশোর, লক্ষ্মীপুর, মাগুরা, ময়মনসিংহ, রাজশাহী, সাতক্ষীরা, গাজীপুর, মানিকগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ, টাঙ্গাইল এবং মুন্সীগঞ্জ।

সেগুলো বিশ্লেষণের পর ২০১৬ সালে মাটিতে ভারী ধাতুর উপস্থিতি চিহ্নিত করা হয়। এর পরের বছর সায়েন্স অব দ্য টোটাল এনভায়রনমেন্ট গবেষণা সাময়িকীতে সেই গবেষণাপত্রটি প্রকাশ করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here